আজ সান্তাল হুল দিবস! বীর-শহিদদের শ্রদ্ধা জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ

অমৃতস্য সাগরিকা
কলকাতা ,
June 30th 2020, 5:15 pm
today-is-santal-hul-day
দিলীপ ঘোষ শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন শহিদ সিধু-কানুকে

আজ সাঁওতাল বিদ্রোহ দিবস বা সান্তাল হুল দিবস! প্রতিবছর আজকের দিন অর্থাৎ ৩০শে জুন পালিত হয় হুল দিবস। 

পশ্চিমবঙ্গের বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ আজ শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করেছেন বীর শহিদ সিধু-কানুসহ সকল স্বাধীনতা সংগ্রামীদের! 

এই ইতিহাস ১৫০ বছরের পুরনো। উনবিংশ শতাব্দী অর্থাৎ ১৮৬৫ সালে সিধু-কানুর নেতৃত্বে হয়েছিল আদিবাসীদের বিদ্রোহ। 

সান্তাল হুলই ছিল অত্যচারী ইংরেজদের ভারত থেকে বহিষ্কার করার প্রথম আন্দোলন। 

সিধু-কানুকে নির্মমভাবে হত্যা করে ইংরেজদের সিপাহি। যোদ্ধা সিধুকে মারা হয় গুলি করে, কানুকে মারা হয় ফাঁসি দিয়ে। 

উল্লেখযোগ্য যে, সাঁওতালরা ইংরেজ আমলেও কোন মর্যাদা পায়নি। গণতান্ত্রিক দেশে আজও পাচ্ছে না। এ বড় মর্মান্তিক এক ইতিহাস। চিরকাল ওরা বঞ্চিত। 

ইংরেজদের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্যে একই পরিবারের ৬ ভাইবোন সিধু-কানু-বিরসা-চাঁদ-ভৈরব এবং দুই বোন ফুলমণি এবং ঝানু মুর্মুর সংগঠিত আন্দোলন পৃথিবীর ইতিহাসে বিরল। 

বাংলা সাহিত্যের বিখ্যাত লেখক মহাশ্বেতা দেবী বিরসাকে নিয়ে লিখেছেন ‘অরণ্যের অধিকার’। 

বিরসা, সিধু, কানুর ডাকে সাড়া দিয়ে নিজেকে উজাড় করে দিয়েছিল চারশত গ্রাম। পাশাপাশি নির্যাতিত হয়েছিল অসংখ্য জনগণ। 

অত্যন্ত আশ্চর্যের বিষয় হলো, দেশের স্বাধীনতা দিবস ১৫ আগস্টে এই বীর যোদ্ধাদের নাম, ত্যাগ উচ্চারণ করা হয়না। হবেই বা কেন, তাহলে যে বর্তমানের অত্যাচারীদের উল্লেখ করতেই হয় ইংরেজ অত্যাচারের কথা! 


Related Posts

Recent News

Available at

© 2019 - Maintained by EZEN Software & Technology Pvt. Ltd