চিনা লগ্নি, কলকাতায় জোমাটো থেকে ইস্তফা শতাধিকের

এন ই নাও নিউজ
কলকাতা,
June 27th 2020, 9:59 pm
chinese-investment-in-zomato-100-delivery-boys-to-quit-job-in-kolkata
জোমাটোর পোশাক পুড়িয়ে চলছে প্রতিবাদ

করোনার সময় দেশ তথা সমগ্র বিশ্ব জুড়ে যখন অর্থনৈতিক মন্দা চরমে, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে কর্মী ছাঁটাই চলছে, ঠিক তখনই খাদ্য সরবরাহ সংস্থা জোমাটো থেকে নিজে থেকেই ইস্তফা দেওয়ার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করলেন কলকাতার ১০০ ডেলিভারি কর্মী। 

লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় ভারত-চিন বিবাদের জেরেই দেশের বিভিন্ন অংশে চিনা দ্রব্যের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ চলছে। অনেক দোকান ইতিমধ্যেই চিনা সামগ্রী বিক্রি করা ও মজুত রাখা বন্ধ করেছেন। কিন্তু চিনার হাত ভারতের বাজারে প্রায় সব ক্ষেত্রেই প্রসারিত। সূত্রের খবর অনুযায়ী, গত জানুয়ারিতে চিনের বৃহৎ সংস্থা আলিবাবার অধীনস্থ ‘অ্যান্ট ফিনানশিয়াল’ প্রায় ১৫০ মিলিয়ন ডলার জোমাটোতে বিনিয়োগ করে। 

সে’কথা জানতে পেরেই বেহালা এলাকায় কর্মরত জোমাটোর কর্মীরা কাজ ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেন। জানিয়ে দেন, চিনের টাকায় চলা কোম্পানিতে কাজ করে তাঁরা দেশের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করতে পারবেন না। শনিবার কোম্পানির শতাধিক কর্মী কোম্পানি থেকে দেওয়া জোমাটোর পোশাক পুড়িয়ে দিয়ে ডায়মন্ড হারবার রোডে প্রতিবাদ জানান। সঙ্গে ছিল ভারতের পতাকা এবং গালওয়ানে চিনা বাহিনীর হাতে প্রাণ দেওয়া জওয়ানদের ছবি।

তাঁদের বক্তব্য, ভারতের সেনাবাহিনীকে আক্রমণ করে, পাশবিকভাবে হত্যা করে যারা অন্যায়ভাবে ভারতের জমি যারা দখল করতে চায়, সেই দেশের কোম্পানির কাছে ভারতবাসীর রক্ত জল করা পয়সা জেনেশুনে তুলে দেওয়া যায় না। তাই এই মন্দার বাজারেও কর্মীরা নিজেদের পরিবারের কথা না ভেবে চিনের মালিকানাধীন কোম্পানির দাসত্ব ছুঁড়ে ফেলতে তৈরি। 

তাঁদের একজন বলেন, "আমাদের অনেকের পরিবারই এই মাইনের টাকার উপরে একান্ত নির্ভরশীল। কিন্তু সীমান্তে মোতায়েন সেনাদের আত্নত্যাগ, কষ্টের কথা ভেবে আমাদের পরিবারের সদস্যরাও আত্মত্যাগে রাজি। "

গালওয়ানে চিনা বাহিনী সমরসজ্জা মোটেই কমাচ্ছে না। তাই তাদের পাল্টা চাপে রাখতে লাদাখে অত্যাধুনিক আকাশ মিসাইল মোতায়েন করেছে ভারতীয় সেনা। কিন্তু সীমান্তের যুদ্ধের চেয়েও বড় আগ্রাসন চিন চালিয়েছে ভারতের বাজার অর্থনীতিতে। 

জোমাটোত্যাগী কর্মীদের মতে, শুভবুদ্ধিসম্পন্ন সব ভারতীয়ের উচিত যে কোনও চিনা দ্রব্য বর্জন করা। সকলকে অনুরোধ, দয়া করে চিনা সংস্থার জিনিস কিনে আক্রমণকারীদের পকেট ভরাবেন না। 


Related Posts

Recent News

Available at

© 2019 - Maintained by EZEN Software & Technology Pvt. Ltd