ত্রিপুরাঃ বিজেপি আইপিএফটি-কে শেষপর্যন্ত ultimatum দিল!

নিউজ ডেস্ক
আগরতলা

Published Time

February 23, 2021, 5:45 pm

Updated Time

February 23, 2021, 5:51 pm
bjp-has-finally-given-an-ultimatum-to-his-ally-ipft
বিজেপি

বিজেপি অবস্থান পরিষ্কার করার জন্যে শেষ পর্যন্ত তার মিত্র আইপিএফটি (Indigenous Peoples Front of Tripura) –কে আলটিমেটাম দিয়েছে।

বিজেপি সাংসদ রেবতী ত্রিপুরা বলেছেন, আজ সন্ধ্যায় ত্রিপুরার উপ মুখ্যমন্ত্রী যিষ্ণু দেববর্মার কোয়ার্টারে বিজেপি এবং আইপিএফটি নেতাদের মধ্যে বৈঠক হবে। সেই সভায় তাদের উচিত অবস্থান পরিষ্কার করা। 

তিনি আরো বলেন, তাদের পরিষ্কার উত্তর পাওয়ার পর বিজেপি কী না করবে সেই সিদ্ধান্ত নেবে।

উল্লেখযোগ্য যে, ত্রিপুরার এডিসি নির্বাচনের আগে গতকাল রাতে যিষ্ণুর সরকারী বাসভবনে আলোচনা সভা হয়।

উল্লেখযোগ্য যে, গত সপ্তাহে আইপিএফটি প্রদ্যোৎ কিশোরের টিপ্রার সাথে জোট করেছিল।

বিজেপির মিত্র আইপিএফটি প্রদ্যোৎ কিশোরের টিপ্রার সাথে জোট ঘোষণা করেছে। 

শুক্রবার সন্ধ্যায় নতুন জোটের ঘোষণা করেন প্রদ্যোৎ কিশোর, এনসি দেববর্মা এবং মেবার জামাতিয়া।

বিজেপির সাথে আঁতাত রেখেই ত্রিপুরার শাসক জোট শিবির পরিবর্তন করল। এডিসি নির্বাচনে হাত ধরেছে তিপ্রাহা-র। 

আইপিএফটি-র দাবি বৃহত্তর স্বার্থের যুক্তি তুলে ধরে ত্রিপুরায় জোটসঙ্গী বিজেপির সাথে কিছুটা দূরত্ব তৈরি করে টিপ্রার সাথে হাত মেলানো হল। 

আইপিএফটি সভাপতি তথা রাজস্বমন্ত্রী এনসি দেববর্মা বলেন, জনজাতি কল্যাণে তিপ্রাহা-র সাথে আমাদের মতের মিল রয়েছে। তারা চাইছে গ্রেটার টিপ্রাল্যান্ড। এর ফলে অভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে জনজাতি কল্যাণে কাজ করার জন্যেই জোট গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। 

তিনি আরো যোগ করেন , এ বিষয়ে অনেক বৈঠক-আলোচনা হয়েছে। এরপরই আমরা ঐক্যমতে পৌঁছেছি । 

মেবার জামাতিয়া কী বলছেন এ বিষয়ে? ত্রিপুরার বিজেপি মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের কাজে অর্থাৎ রাজ্য সরকারের কাজে সন্তুষ্ট নন তিনি। একথা জানান। জানান, জনজাতির কল্যাণে প্রতিশ্রুতি পূরণের কোন রকম লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না। ফলে তিপ্রাহা-র সাথে জোট গঠন ছাড়া অন্য কোন উপায় ছিল না। 

এদিকে এনসি দেববর্মা বলেন, মতাদর্শগতভাবে আমরা আলাদা। ফলে যে কোন রাজনৈতিক দলের সাথে জোট গঠন করতে পারে। এবং সেটা অসাংবিধানিক নয়। 

আইপিএফটি নেতাদেরও তলব করেছে বিজেপি নেতৃত্ব।

TTAADC (Tripura Tribal areas Autonomous district council)খুব শীঘ্রই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

প্রসঙ্গত উল্লেখযোগ্য যে, বিজেপি ও ইন্ডিজিনাস পিপলস ফ্রন্ট অফ ত্রিপুরা জোট পেয়েছিল ৪৪টি আসন। এরমধ্যে বিজেপি একাই জিতে ৩৬টি আসনে। শরিক আইপিএফটি জয়ী ৮টি আসনে। এবং রাজ্যে বাম শাসনের ইতি ঘটায়।

বিজেপি একাই ৩৬টি আসন জিতে সংখ্যাগরিষ্ঠ দলের স্বীকৃতি পায়।



Recent News

Available at

© 2019 - Maintained by EZEN Software & Technology Pvt. Ltd