'আমি কাকে ভালোবাসব সেটা আমার বিষয়'! নির্বাচনের আগে 'লাভ জিহাদ' ইস্যু ভিন্ন দিকে ঘুরিয়ে দেয়ার চেষ্টা তৃণমূল সাংসদ নুসরাতের

নিউজ ডেস্ক
কলকাতা

Published Time

November 22, 2020, 12:04 pm

Updated Time

November 22, 2020, 12:04 pm
trinamool-mp-nusrat-is-trying-to-divert-the-issue-of-love-jihad
নুসরাত

লাভ জিহাদ’! মারাত্মক অপরাধ! একে শাস্তিযোগ্য অপরাধ হিসেবে শ্রেণীভুক্ত করা হবে।

বিজেপিশাসিত ভারতের রাজ্যগুলো লাভ জিহাদের বিরুদ্ধে কঠোর হচ্ছে।

মধ্যপ্রদেশসহ উত্তরপ্রদেশ, অসম তৎপর হয়ে উঠেছে এই জিহাদের বিরুদ্ধে। এই মর্মে নয়া আইন আনতে চলেছে যোগী আদিত্যনাথের উত্তরপ্রদেশে।

তবে ঠিক বিধানসভা নির্বাচনের আগে লাভ জিহাদ ইস্যুটিকে ভিন্নদিকে মোড় দিতে চাইছে তৃণমূল। বিজেপির এই তৎপরতার বিরুদ্ধে সমালোচনায় সরব হলেন উত্তর ২৪ পরগনার বসিরহাটের তৃণমূল সাংসদ নুসরত জাহান।

শনিবার কলকাতায় জগদ্ধাত্রী পুজোর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগদান করে সেখান থেকেই গেরুয়া শিবিরকে তাঁর আক্রমণ!

নুসরাত জাহান বলেন, “এটা অত্যন্ত দুঃখের বিষয়। লাভ এবং জেহাদ কখনও এক হতে পারে না। ভালবাসা ব্যক্তিগত। আমি কাকে ভালবাসব সে নিয়ে কারও কিছু বলার থাকতে পারে না”।

নুসরাত জাহান বিয়ে করেছেন ধর্মের গণ্ডি পেড়িয়ে নিখিল জৈনকে! তিনি স্ব-ইচ্ছায় মাথায় সিঁদুর পরছেন। মঙ্গলসূত্রও দেখা যায় ! এতে কিন্তু অনেকবার মুসলমান এবং হিন্দুও কিছু কট্টরপন্থীর ধিক্কার শুনেছেন নুসরাত! তবে তিনি মুক্তমনা, এসব ধর্মীয় গোঁড়ামিকে তিনি কোনদিনই প্রশ্রয় দেননা। খোলা মনে দুর্গাপুজোতে অংশ নেন। সবকিছুই করেন হিন্দুদের যা যা করণীয়! 

এতে অনেক প্রশংসাও তিনি পেয়েছেন। ধর্মীয় গোঁড়ামি মানুষকে নষ্ট করে! 

তিনি নিজেকে বাঙালি হিসেবে পরিচয় দেন! ধর্মনিরপেক্ষতাই আসল!

তবে বিজেপির লাভ জিহাদের বিরুদ্ধে লড়াইকে ভোটের আগে উসকানি মন্তব্য করে ভিন্ন মোড় দিতে চাইছেন তিনি।

 

মধ্যপ্রদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নরোত্তম মিশ্র ঘোষণা করেছেন, প্রেমের ফাঁদে ফেলে, মিষ্টি কথায় ভুলিয়ে ধর্মান্তরিত করার অভিযোগে অভিযুক্তকে ৫ বছর কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে। অতি শীঘ্রই বিধান সভায় এই সম্পর্কিত বিল আনা হবে। 

অনেকেই জানতে চাইছেন, হিন্দু-মুসলমানে বিয়ে হতে পারবে কিনা? তা অবশ্যই পারবে। কারণ এটি হয়ে আসছে। এক্ষেত্রে কোন বাধা নেই। এটি শুধু লাভ জিহাদের বিরুদ্ধে লড়াই। 

মধ্যপ্রদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দাবি, দুই ধর্মের মধ্যে বিয়েতে কোনও আপত্তি নেই বিজেপি সরকারের। নয়া বিলের মাধ্যমে শুধুমাত্র ‘লাভ জিহাদ’-র বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। 

তবে এক্ষেত্রে কেউ যদি বিয়ের জন্যে নিজের ধর্ম পরিবর্তন করতে চান, তাহলে বিয়ের একমাস আগে জেলাশাসককে সে বিষয়ে বিস্তারিত জানাতে হবে।

ভোপালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নরোত্তম মিশ্র জানিয়েছেন, জোরজবরদস্তি করে দুই ধর্মের মধ্যে বিয়ে করলে বা ‘লাভ জিহাদ’ যাকে বলে-এর প্রচার করলে নতুন বিল অনুযায়ী পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডিত করা হবে।

তদুপরি, ধৃতদের বিরুদ্ধে জামিন-অযোগ্য ধারায় মামলা দায়ের করা হবে।

মন্ত্রী বলেন, ‘লাভ জিহাদের বিরুদ্ধে শীতকালীন অধিবেশনে আমরা ২০২০ সালের মধ্যপ্রদেশ ধর্ম স্বতন্ত্র বিল পেশ করব। এর অর্থ হচ্ছে অন্য ধর্মের ব্যক্তিকে বিয়ের জন্যে একজন মহিলাকে বাধ্য করা বা প্রলোভন দেখানো এবং ধর্ম পরিবর্তনের জন্যে পরে তাঁকে (মহিলা) অত্যাচার-নির্যাতন করা।’

অতি সম্প্রতি দেশের বিভিন্ন রাজ্যে লাভ জিহাদ বৃদ্ধি পেয়েছে বলে অভিযোগ উত্থাপন করেছে হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলো! এবং এগুলো মিথ্যা নয়। 

অর্থাৎ ভুয়া পরিচয় দিয়ে একটি পুরুষ প্রেমের ফাঁদে ফেলে যুবতীকে অন্য ধর্মে ধর্মান্তরিত করার অভিযোগ উত্থাপন হয়েছে।

এমনকি তাঁদের অভিযোগ যে, ভুয়া পরিচয় দিয়ে কোন একটি মেয়েকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে তাঁকে নিজের ধর্মে ধর্মান্তরিত করার জন্যে বাধ্য করা হয়।

বহু হিন্দুত্ববাদী সংগঠন এই জিহাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইন প্রণয়ন করে লাভ জিহাদকে শাস্তিযোগ্য অপরাধ হিসেবে ঘোষণা করার জন্যে দাবী জানিয়ে আসছে। 

শিবরাজ সিং চৌহান বিজেপি সরকার মধ্যপ্রদেশে লাভ জিহাদের বিপক্ষে আইন কার্যকর করার জন্যে ‘মধ্যপ্রদেশ স্বাধীনতা বিল, ২০২০’ প্রণয়ন করার জন্যে তৈরি হয়েছে।

অসমেও এই আইন আনার চেষ্টা করা হচ্ছে।

নুসরাতের মন্তব্যে এখনো কোন প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি গেরুয়া শিবিরের।



Recent News

Available at

© 2019 - Maintained by EZEN Software & Technology Pvt. Ltd