বাংলা থিয়েটার নিয়ে দেখা বাকি স্বপ্নগুলো পূরণ হলো না আর, চলে গেলেন শিল্পী ত্রিদিব ঘোষ!

এন ই নাও নিউজ
কলকাতা,
July 1, 2020, 4:55 pm
tridib-ghosh-is-no-more
শিল্পী ত্রিদিব ঘোষ। ছবি সংগৃহীত

বাংলা থিয়েটার জগতে একটি যুগের অবসান। এক অপূরণীয় ক্ষতি। ভক্তমনকে কাঁদিয়ে চলে গেছেন বিখ্যাত যাত্রা সম্রাট ত্রিদিব ঘোষ। 

সোমবার ভোর ৫টা ৩০ মিনিটে যাদবপুরে নিজের বাড়িতে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান তিনি। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৬৮ বছর। 

করোনার এই লকডাউনের পরই আবার নতুন করে যাত্রার রিহার্সাল শুরু করার কথা ছিল তাঁর। আজীবন যাত্রা শিল্পকে বাঁচিয়ে রাখার জন্যে কঠোর পরিশ্রম করেছেন ত্রিদিব বাবু।

এবার জীবনের মঞ্চ ছেড়েই চলে গেলেন শিল্পী। 

যাত্রা সম্রাট ত্রিদিব ঘোষ ১৯৭৫ সালে চিত্তরঞ্জন অপেরায় আত্মপ্রকাশ করেন। সেটা ছিল যাত্রার সোনার যুগ। অসামান্য অভিনয় ক্ষমাতার নিরিখে খুব তাড়াতাড়ি তিনি উঠে আসেন যাত্রা জগতের শ্রেষ্ঠ আসনে।

চিত্তরঞ্জন অপেরায় জীবন শুরু করা ত্রিদিব ঘোষ একে একে ‘নট্য কম্পানি ’, ‘ভারতি অপেরা ’, ‘ অগ্রগামী অপেরা ’, ‘লোকনাট্য অপেরা ’, ‘গানবানী অপেরা ’, ‘নটরাজ অপেরা’ সহ বহু বিখ্যাত অপেরায় অভিনয় করেছেন। 

তাঁর অভিনিত পালা, ‘মা বিক্রির মামলা’, ‘হাটে বাজারে ’ ‘আজকের মির্জাফর’ , ‘ ভগবানের ছদ্দবেশে’, ‘ সম্রাট ঔরঙ্গজেব’, ‘কাল কেউটের ছোবল’, ‘ বুনো ওল বাঘা তেঁতুল’ সুপার ডুপার হিট। 

এছাড়াও শিল্পী ত্রিদিব টলিউডেও অভিনয় করেছেন। ‘আত্মীয় স্বজন’, ‘ আশ্রয়’, ‘বাহাদুর’, ‘শ্বশুর বাড়ি জিন্দাবাদ’ হিট ছবিতে তিনি অভিনয় করেছেন। 

ত্রিদিব ঘোষ অভিনীত শেষ যাত্রা ‘উলঙ্গ সম্রাট’। 


Related Posts

Recent News

Available at

© 2019 - Maintained by EZEN Software & Technology Pvt. Ltd