অবৈজ্ঞানিক ভাবে বড়াইল পাহাড় কাটছে নাহাই : অভিযোগ; মরণফাঁদে পরিণত হয়েছে অসমের জাটিঙ্গা-মাইবাং তথাকথিত মহাসড়ক !

Published Time

June 10, 2021, 7:30 pm

Updated Time

June 10, 2021, 7:30 pm
the-so-called-jatinga-maibang-highway-has-become-a-death-trap
জাটিঙ্গার কাছে পাহাড় কেটে তছনছ করে নির্মিয়মান মহাসড়ক মরনফাঁদে পরিণত হয়েছে।

অসমের জাটিঙ্গার কাছে বড়াইল পাহাড়ে অবৈজ্ঞানিক ভাবে নাহাই হাত দিয়েই আজ থেকে তিন চার বছর আগে বিপদ ডেকে আনে।এখন নাহাই সামাল দিতে পারছে না।এরপরই অর্ধনির্মিত সড়কের উপর পাহাড় নেমে আসে। 

আজ থেকে মাসাধিককাল আগে পাহাড় আটকাতে রত্না ইনফ্রা বোল্ডার স্যোসেস বসায়। এই অভিযোগ স্থানীয় গ্রামবাসীদের। গ্রামের বয়োজ্যেষ্ঠদের মতে মহাসড়কের জন্য ওইসব এলাকায় সঠিক ভাবে সয়েল স্ট্রাটাই নাহাই সংগ্রহ করেনি।  

যার ফল সাধারণ জনগণকে ভোগ করতে হচ্ছে। আসলে প্রতি বছর ওই এলাকায় বরষার মরশুমে এহেন সমস্যার সৃষ্টি হয়ে আসছে। যা নতুন নয়। কিন্তু নাহাই সেই বিগত প্রায় এক দশক থেকে এই পথ নির্মাণের নামে কোটি কোটি টাকা ব্যয় করলেও বাস্তবে যে কিছু কাজ হয়নি তার ফল। 

অসমের ডিমা হাসাও জেলায় মহাসড়ক নির্মাণ কাজ নাহাইর কাছে কামধেনুতে পরিণত হয়েছে। কারণ এনকেসি নামের ঠিকাদারি গোষ্ঠী কিছু কাজ করে চলে যাওয়ার পর শিলচরের লক্ষ্ণী মোটর্সকে ২৪ কিলোমিটার পথ সংস্কারের দায়িত্ব দেওয়া হয়। লক্ষ্ণী কোনো কাজ করেনি। এরপর রত্না ইনফ্রাস্ট্রাকচার লিমিটেড নামের এক বহিরাগত ঠিকাদারি সংস্থাকে দায়িত্ব দেওয়া হয় যদিও কিন্তু কাজ করছে লক্ষ্ণী। 

অভিযোগ রয়েছে যে লক্ষ্ণীর সঙ্গে নাহাইর হাফলং পিআইইউর প্রজেক্ট ডিরেক্টর কার্গে কামকির সঙ্গে মধুর সম্পর্ক রয়েছে। এতেই সড়ক জাহান্নামে গেলেও লক্ষ্ণী বেশ কম সময়ে আঙুল ফুলে কলাগাছ হয়ে উঠেছে। 

ডিমাসা স্টুডেন্ট ইউনিয়ন এর আগে অসমের মাইবাং-হারাঙ্গাজাও ৪৯ কিলোমিটার পথ নির্মাণ নিয়ে সিবিআই তদন্তের দাবি জানিয়ে ছিল। আসলে সর্ষের মধ্যেই ভুত রয়েছে। ঠিক লামডিং-শিলচর ব্রডগেজের বেলায় রেল আমলারা নিজের মত করে কাজ করতে গিয়েই অতিরিক্ত সময় এবং খরচের বহর বাড়ে। 

অনুরূপ ভাবে নাহাইর গুয়াহাটিস্থিত রিজিওনাল কার্যালয় এবং একাংশ আমলাই মহাসড়ক নির্মাণে বাঁধা হয়ে দাঁড়িয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

উল্লেখ্য, অসমের জাটিঙ্গার কাছে লংমা এবং কেলেলো গ্রামের মধ্যে তথাকথিত মহাসড়কে গতকাল পণ্য বোঝাই লরি ফেঁসে গিয়ে যানবাহন আবদ্ধ এবং যখন মুমুর্ষ কোভিড রোগী নিয়ে তিনটি অ্যাম্বুলেন্স ঘন্টার পর ঘন্টা দাঁড়িয়ে সেখানে দাঁড়িয়ে রয়েছে ওইসময় নাহাইর হাফলং পিআইইউর প্রজেক্ট ডিরেক্টর কার্গে কামকি শিলচরে রয়েছেন। 

নাহাই কার্যালয় সূত্রে এই খবর জানা গেছে। তবে এই মুহূর্তে জাটিঙ্গার তথাকথিত মহাসড়ক দিয়ে হাল্কা যানবাহন চলাচল করছে যদিও কিন্তু সামান্য বৃষ্টি নামলেই ফের পথ বন্ধ হয়ে পড়বে নিশ্চিত।



Recent News

Available at

© 2019 - Maintained by EZEN Software & Technology Pvt. Ltd