২১ ও ২২ নভেম্বর উমরাংশুতে ফ্যালকন ফেস্টিভ্যাল, ঝাঁকে ঝাঁকে আমুর ফ্যালকন !

পঙ্কজকুমার দেব
হাফলং

Published Time

November 10, 2020, 1:31 pm

Updated Time

November 10, 2020, 1:31 pm
falcon-festival-in-umrangshu-on-21st-and-22nd-november
মরাংশুতে ভিড় করা আমুর ফ্যালকন। ফাইল ছবি

পাহাড়ের পর্যটন শিল্পের সামগ্রিক উন্নয়নের লক্ষ্যে উত্তর কাছাড় পার্বত্য স্বশাসিত পরিষদের ধারাবাহিক প্রচেষ্টা প্রশংসনীয় সন্দেহ নেই। বিশেষ করে একের পর এক নতুন পদক্ষেপ নিচ্ছে পরিষদ। 

পথঘাট সচলেও অধিক গুরুত্ব দিয়েছে এই পরিষদ। যাতে করে দেশী বিদেশী পর্যটকরা বেশী করে পাহাড় মুখী হয়। আর পর্যটকদের জন্য এবারও উমরাংশুতে অনুষ্ঠিত হবে ফ্যালকন ফেস্টিভ্যাল। 

আগামি ২১ এবং ২২ নভেম্বর এখান থেকে ১২৭ কিলোমিটার দূরত্বের উমরাংশু শহরে ফ্যালকন ফেস্টিভ্যাল অনুষ্ঠিত হবে। সোমবার পার্বত্য স্বশাসিত পরিষদের সিইএম কনফারেন্স হলে পরিষদ প্রধান দেবোলাল গার্লোসা উমরাংশু এবং হাফলঙের একাধিক বেসরকারি সংগঠনের প্রতিনিধিদের সঙ্গে ফ্যালকন ফেস্টিভ্যাল নিয়ে বৈঠক শেষে ফেস্টিভ্যালের উপরোক্ত দিন তারিখ চূড়ান্ত হয়। 

ইতিমধ্যে উমরাংশুতে পরিযায়ী পাখি আমুর ফ্যালকনরা ভিড় করছে। যা প্রকৃতি প্রেমী তথা পক্ষী প্রেমীদের জন্য সুখবর। অনুরূপ ভাবে উদ্যোগ নগরী উমরাংশুতে বাড়ছে আমুর ফালকনদের সংখ্যা‌।

undefined

ফ্যালকন ফেস্টিভ্যাল নিয়ে হাফলঙে বৈঠক করছেন সিইএম দেবোলাল গার্লোসা। 

এতে একটি বিষয় স্পষ্ট যে উমরাংশুতে পক্ষী নিধন যজ্ঞ হ্রাস পেয়েছে। অবশ্য এতে বন এবং পরিবেশ বিভাগের পরিশ্রম অনস্বীকার্য। কারণ দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে আমুর ফ্যালকন নিধন রোধে সভা সমিতি,কর্মশালাও হয়েছে।  

এর আগে একটি গোষ্ঠী আমুর ফ্যালকন মাংসের জন্য হত্যা করত। এতে শিকারীরা এয়ারগান বা ক্যাটপল্ট ব্যবহার করতেন। 

তবে বন বিভাগের নিরলস প্রচেষ্টা এবং সক্রিয় অংশগ্রহণের পাশাপাশি সজাগতা গড়ে তোলায় পাখিদের হত্যা অনেকটা হ্রাস পেয়েছে। স্থানীয় পক্ষী প্রেমীদের কাছ থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী পাখীর দল অক্টোবরের দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকে ধীরে ধীরে আসতে শুরু করে।

প্রায় দেড় মাস থাকার পর নভেম্বরের শেষ সপ্তাহে নিজ গন্তব্য স্থলে ফিরে যায়। সাইবেরিয়া থেকে আসা হাজার হাজার আমুর ফ্যালকন উমরাংশুর নেপকো রিজার্ভারের আশপাশের জঙ্গলে আস্তানা গাড়ে। 

কিন্তু কেন এই সময়েই পাখীদের আগমন ঘটে তা রহস্যাবৃত। 

এই সময় আমুর ফ্যালকন দেখতে প্রতিবশী মেঘালয় অসমের ভিন্ন এলাকার পক্ষী প্রেমীরা উমরাংশুতে ভিড় জমায়। বন বিভাগ থেকে প্রাপ্ত তথ্যমতে বন সুরক্ষা কর্মীদের সঙ্গে বন কর্মীরা রাতে দু'টি শিফটে টহলে ব্যস্ত থাকেন। 

যাতে দুষ্কৃতীরা পাখিদের হত্যা করতে না পারে। বন বিভাগের তরফে আমুর ফ্যালকন দেখতে আসা পর্যটকদের সহায়তা করতেও নির্দেশ দিয়েছে পরিষদ।



Recent News

Available at

© 2019 - Maintained by EZEN Software & Technology Pvt. Ltd